এপ্রিলের আগে খুলছে না শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে এপ্রিলের আগে খুলছে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত স্কুল কলেজ বন্ধ রয়েছে তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় চলতি সপ্তাহে আবারো বাড়ানো হচ্ছে ছুটি। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন আগামী এপ্রিল মাসের আগে স্কুল কলেজ খোলার কোনো পরিকল্পনা আপাতত নেই। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ক্লাসরুমে ফেরানোর চিন্তা করছে না সরকার।

আরো পড়ুন- পরীক্ষার্থীদের ঝুঁকিতে ফেলে কোনো পরীক্ষা নেওয়া হবে না

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো: জাকির হোসেন বলেছেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠারে ছুটি আবারো বাড়ানো হবে। তবে কতদিন এই ছুটি বাড়ছে তা তিনি নিশ্চিত করেনি। অবশ্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে করোনা পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে না এলে ঝুঁকি নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে না। আগামী এপ্রিল মাসকে টার্গেট নিয়ে স্কুল কলেজ খোলার একটি প্রস্তুতি রয়েছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগামী ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত দেশে শীত থাকবে। তাই এই শীতের সময়টাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে শিক্ষার্থীদের কোনো ধরনের ঝুঁকিতে ফেলতে চায় না সরকার। তাই ফেব্রুয়ারির পরেও আরো এক মাস অর্থাৎ মার্চ মাস পর্যন্ত সময়টা পর্যবেক্ষণ করে এপ্রিলে খুলতে পারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। আর এই সময়ে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা অব্যাহত রাখতে আবারো নতুন করে অ্যাসাইনমেন্ট দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। ইতোমধ্যে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইমেন্ট প্রণয়নের প্রক্রিয়াও শুরু করেছে।

বিকাশ এপ ডাউনলোড করে লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস, সাথে ৫০ টাকা বোনাস একদম ফ্রী - Bkash App Download Link শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

এনসিটিবি সূত্র জানায়, আগামী ১২ এপ্রিল পর্যন্ত নতুন অ্যাসাইনমেন্টের জন্য সিলেবাস নির্ধারণ করে (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ মো: গোলাম ফারুকের কাছে পাঠিয়েছে এনসিটিবি। তবে, প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের এ জাতীয় কোনো অ্যাসাইনমেন্ট প্রণয়নের কাজ এখনো শুরু করেনি প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)।

এনসিটিবি আরো সূত্র জানায়, বাংলা, ইরেজি, গণিত, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, বিজ্ঞান, কৃষিশিক্ষা ও গার্হ্যস্থ বিজ্ঞানে সাতটি বিষয়ের প্রণীত সিলেবাস ও অ্যাসাইনমেন্টের হার্ড কপি ও সফটকপি মাউশিতে পাঠিয়েছে এনসিটিবি। পর্যায়ক্রমে অন্য বিষয়গুলোর সিলেবাস ও অ্যাসাইনমেন্ট পাঠানো হবে। চলমান ছুটি আরো বাড়ানোর সম্ভাবনা থাকায় বন্ধ থাকাকালীন এ উদ্যোগ নিয়েছে এনসিটিবি। আর নতুন শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা চালিয়ে নিতে ফের চালু হবে সংসদ বাংলাদেশ টিভি, রেডিওসহ অন্যান্য ভার্চুয়াল ক্লাস।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এনসিটিবি চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা না হলেও শিক্ষার্থীদের নতুন ক্লাসের অ্যাসাইমেন্ট দেয়া হবে। কেননা করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আরো কিছু দিন বন্ধ থাকবে। করোনার প্রাদুর্ভাব কমলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কবে খুলবে তা নিশ্চিত করে এখনি বলা যাচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার মধ্যে রাখতে নতুন শিক্ষাবর্ষে আগামী ১২ এপ্রিল পর্যন্ত অ্যাসাইনমেন্ট দিতে মাউশিতে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, রমজানের আগ পর্যন্ত এ অ্যাসাইনমেন্টের শিডিউল করা হয়েছে।

Educations in BD ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel Grameenphone এর মাইজিপি এপ ডাউনলোড করে জিতে নিন ৩ জিবি ফ্রি ইন্টারনেট এবং ফ্রি পয়েন্ট MyGP App Download Now

Leave a Reply