জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বৈত ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ইস্যু সম্পর্কিত

২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষ ১ম বর্ষ স্নাতক (পাস) শ্রেণীর দ্বৈত ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ইস্যু সম্পর্কিত জরুরি বিজ্ঞপ্তি

২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (পাস) শ্রেণীতে দ্বৈত ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা ৩০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখের পরে ২০১৬-২০১৭ অথবা ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক পর্যায়ে ভর্তি বাতিল করেছে কিন্তু অদ্যবধি ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (পাস) শ্রেণীর রেজিষ্ট্রেশন কার্ড পায়নি, এ সকল শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন রক্ষার্থে তাদের পূর্বের ভর্তি বাতিলপূর্বক জরিমানা প্রদান সাপেক্ষে ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (পাস) শ্রেণীর রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ইস্যর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে উল্লিখিত সিদ্ধান্ত ।

শুধুমাত্র যে সকল শিক্ষার্থী ডিন, স্নাতকপূর্ব শিক্ষা বিষয়ক স্কুল এ লিখিত আবেদন করেছে তাদের জন্য প্রযোজ্য হবে।

জরিমানার হার নিম্নরূপঃ

ভর্তি বাতিলকারীর ধরণ

ক) ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান), স্নাতক (সম্মান) প্রফেশনাল ও স্নাতক (পাস) অথবা ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) কোর্সে যে সকল শিক্ষার্থী ভর্তি হয়ে ২০১৭ সালের অথবা ২০১৮ সালের ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে।

জরিমানার পরিমাণ

প্রতি শিক্ষার্থী ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা।

ভর্তি বাতিলকারীর ধরণ

খ) ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ,স্নাতক (সম্মান) প্রফেশনাল ও স্নাতক (পাস) অথবা ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) কোর্সে যে সকল শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে কিন্তু ২০১৭ সালের অথবা ২০১৮ সালের ১ম বর্ষ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি।

জরিমানার পরিমাণ

প্রতি শিক্ষার্থী ৭,৫০০/- (সাত হাজার পাঁচশত) টাকা ।

দ্বৈত ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ইস্যু সম্পর্কিত বিজ্ঞপ্তি

সোনালী সেবায় জরিমানার টাকা পরিশোধের লিংক http:/202.51.179.36/PMS/Student/AdmissionCancel.aspx

এ ধরণের শিক্ষার্থীদের উল্লিখিত জরিমানার অর্থ ১৩/০২/২০১৯ তারিখ থেকে ১৯/০২/২০১৯ তারিখের মধ্যে উপরে উল্লিখিত লিংক থেকে পে-ক্লিপ সংগ্রহ করে যে কোন সোনালী ব্যাংক শাখায় “সোনালী সেবার” মাধ্যমে জমা দেয়ার জন্য বলা হলো।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জরিমানার অর্থ প্রদান করা না হলে ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (পাস) শ্রেণীর রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ইস্যু করা হবে না।

এ আদেশ ভবিষ্যতের নজির হিসেবে দেখানো যাবে না।