বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি ও চাকরির বাজারে জটিলতা

করোনার প্রাদুর্ভাবে এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। এসব শিক্ষার্থীকে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও এসএসসির ফলের গড় অনুযায়ী এইচএসসির ফল নির্ধারণের ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে এবার শতভাগ শিক্ষার্থীই পাস করবে। তবে পরীক্ষা ছাড়াই পাসের ফলে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি ও চাকরির বাজারে জটিলতায় পড়তে হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, যারা দুই বছর ধরে পড়াশোনা করল, তার কোনো মূল্যায়ন না রেখে চার বছর আগে একজন শিক্ষার্থী কী করেছে, তা দিয়ে মূল্যায়ন করলে প্রশ্ন থেকেই যায়। যার ব্যাপক প্রভাব পড়বে উচ্চশিক্ষায়। কারণ অনেক শিক্ষার্থীই হয়তো এসএসসিতে কোনো কারণে খারাপ করেছিল, তবে এইচএসসিতে তা পোষানোর জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিল। কিন্তু পরীক্ষা না হওয়ায় তা আর সম্ভব হলো না। এতে সে হয়তো ভালো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ারই সুযোগ পাবে না। চাকরি ক্ষেত্রেও ২০২০ সালের এইচএসসি ও সমমান উত্তীর্ণরা ‘টোয়েন্টি টোয়েন্টি’ ব্যাচ বলে অভিহিত হতে পারেন।

নাম প্রকাশ না করে একটি বেসরকারি কম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘যেহেতু এই বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা ছাড়াই পাস করেছে, তাদের চাকরির ক্ষেত্রে অন্যদের তুলনায় কিছুটা বেশিই যাচাই করা হবে। তবে একজন শিক্ষার্থী যদি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে মেধার স্বাক্ষর রাখতে পারে, তাহলে তাকে হয়তো সমস্যায় পড়তে হবে না।’

উচ্চ মাধ্যমিকে শিক্ষার্থীদের সাতটি বিষয়ে ১৩টি প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিতে হয়, যে বিষয়গুলোর প্রাপ্ত ফলাফল পরবর্তী সময়ে নম্বরপত্রে তোলা হয়।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস!সাথে আছে আরো অ্যাপ অফার: - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস .সর্বমোট ১৫০ টাকা বোনাস পাবেন একজন বিকাশ গ্রাহক। এছাড়া যারা একাউন্ট খুলেছেন তারাও বিকাশ এপ ডাউনলোড করে প্রথম প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস! Bkash App Download Link

বায়োলজি, গণিত, পদার্থ, রসায়ন বিজ্ঞানের বিষয়গুলোর আলাদা পত্র রয়েছে এইচএসসিতে; তবে এসএসসিতে তা নেই। আর জেএসসিতে এসএসসির চেয়েও বিষয় কম।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গত বছর এইচএসসিতে জিপিএ ৫ ছিল মাত্র ৪৭ হাজার। কিন্তু জেএসসি ও এসএসসির ফলাফলের ভিত্তিতে এইচএসসির মূল্যায়ন হলে জিপিএ ৫ প্রাপ্তির সংখ্যাও দ্বিগুণ বেড়ে যাবে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে জটিলতা তৈরি হবে। এ ছাড়া যারা এইচএসসিতে এসে বিভাগ পরিবর্তন করেছে, তাদের মূল্যায়ন নিয়েও জটিলতা তৈরি হবে। কারণ তাদের এসএসসি ও এইচএসসির বেশির ভাগ বিষয়ের সঙ্গেই মিল নেই।

এইচএসসির পরই শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের লেখাপড়ায় যায়। ভবিষ্যতে তারা কোন পেশায় যেতে পারবে—এ পর্যায়েই তা অনেকখানি নির্ধারিত হয়ে যায়। ফলে এইচএসসি পরীক্ষা শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এবার এইচএসসি পরীক্ষা না হওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আগামী শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে এসএসসি ও এইচএসসির ফলাফলের জন্য মাত্র ২০ নম্বর নির্ধারণ করেছে। আগে ২০০ নম্বরের মধ্যে এসএসসি ও এইচএসসির জন্য নির্ধারিত ছিল ৮০ নম্বর।

বিদেশে পড়তে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদেরও এবারের এইচএসসির ফলাফল ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এইচএসসি পরীক্ষার ফলকেই সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়। কিন্তু পরীক্ষা ছাড়া এইচএসসির ফল এবার তারা কতটা মূল্যায়ন করবে তা নিয়ে সন্দিহান সংশ্লিষ্টরা।

Educations in BD ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

Leave a Reply