প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি তথ্য এন্ট্রির সময় বাড়ল

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য প্রদানের সময় বাড়ানো হয়েছে। উপবৃত্তি বিতরণের ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর সঙ্গে চুক্তি হওয়ার পর নানা জটিলতায় এখনও অনেক শিক্ষার্থী নগদের সার্ভারে এন্ট্রি দিতে পারেনি। এসব শিক্ষার্থীদের সুযোগ দিতে আরেক দফায় আরো ১০দিন সময় দেয়া হয়েছে। এ সময়ে বাদ পড়া শিক্ষার্থীরা ডাটা এন্ট্রি করতে পারবে।

আরো পড়ুন- ১০ মার্চের মধ্যে সকল শিক্ষককে করোনার টিকা দেওয়ার নির্দেশ

প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দেয়া হয়। দেশের সব বিভাগীয় শিক্ষা অফিস, জেলা অফিসে ওই নির্দেশনাটি পাঠানো হয়েছে।

জটিলতার কারণে অনেক শিক্ষার্থী সার্ভারে তথ্য এন্ট্রি করতে পারেনি। ফলে গত ৪ মার্চ প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প থেকে শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রির জন্য চতুর্থ দফা সময় বাড়িয়ে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দেশের সব বিভাগীয় ও জেলা শিক্ষা অফিসে পাঠানো হয়। কিন্তু এরপর আর সময় বাড়ানো হবে না বলেও জানানো হয় নির্দেশনায়।

বিকাশ এপ ডাউনলোড করে লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস, সাথে ৫০ টাকা বোনাস একদম ফ্রী - Bkash App Download Link শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

নির্দেশনায় বলা হয়, ২০২০ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ১ম ও ২য় কিস্তির সুবিধাভোগীদের তথ্য উপবৃত্তি ‘নগদ’ পোর্টালে আপলোডের জন্য ১৫ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত বাড়নো হয়েছে। এ সময় নগদের পোর্টাল উন্মুক্ত করে দেয়া হবে। এ সময়সীমা কোনোভাবেই বাড়ানো হবে না।

বলা হয়েছে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের ৪র্থ কিস্তির (এপ্রিল-জুন/ ২০২০) উপবৃত্তির অর্থ বিতরণের সময় প্রথম ধাপে সুবিধাভোগীদের তথ্য ও দ্বিতীয় ধাপে চাহিদাপত্র এন্ট্রি করা হয়েছিল। দুইটি পর্যায়ে কাজ করতে বেশি সময় ক্ষেপণ হয়েছে। এজন্য এখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে একবারেই চাহিদাসহ সুবিধাভোগীদের তথ্য এন্ট্রি করতে হবে।

এ বিষয়ে কোনো অস্পষ্টতা থাকলে ডাটা এন্ট্রির নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই প্রধান শিক্ষককে জেলা মনিটরিং কর্মকর্তা / নগদ এর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কিংবা প্রকল্প কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে সংশ্লিষ্টদের বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রকল্প পরিচালক মো. ইউসুফ আলী বলেন, গত বছরের দ্বিতীয় কিস্তির বকেয়া টাকা গত মাসে বিতরণ শেষ হয়েছে। যাদের তথ্যে ত্রুটি আছে তাদের এ কিস্তির টাকা দেয়া হয়নি। তবে তথ্য আপডেট করলে পরবর্তী কিস্তির টাকা পাবে। সার্ভারে শতভাগ তথ্য আপলোড করা না হলেও কাউকে উপবৃত্তির টাকা দেয়ার সুযোগ নেই।

ইউসুফ আলী জানান, চলতি মাসের ১৫ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত নতুন করে তথ্য আপলোডের সুযোগ দেয়া হবে স্কুল শিক্ষকদের। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের তথ্য আপলোড করা হলে পরবর্তীতে উপবৃত্তির টাকা পাবে।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, এর আগে সর্বশেষ ২৫ জানুয়ারি তৃতীয় দফা তথ্য দেওয়ার শেষ দিন ছিল। এরপরও যারা বাকি ছিল তাদেরও উপবৃত্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য এ সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

Educations in BD ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel Grameenphone এর মাইজিপি এপ ডাউনলোড করে জিতে নিন ৩ জিবি ফ্রি ইন্টারনেট এবং ফ্রি পয়েন্ট MyGP App Download Now

Leave a Reply