৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রস্তুতি শেষ করবেন যেভাবে

বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রস্তুতি শেষ করবেন যেভাবে। গত ২৭.১১.২০১৯ তারিখে প্রকাশিত হয়েছে বাংলাদেশের সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত সরকারি চাকরি বিসিএসের ৪১তম সার্কুলার। এই সার্কুলারের মাধ্যমে অন্তত ২,১৬৬ জন প্রথম শ্রেণির গেজেটেড ক্যাডার অফিসার নিয়োগ দিবে সরকার। এই সংখ্যা আরো বাড়বে বলে আমার বিশ্বাস। এর বাইরে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির আরো কয়েক হাজার নন-ক্যাডার অফিসার নিয়োগ দিবে সরকার। 41st BCS Preliminary Test Preparation 2020

আরো পড়ুন- ৪১তম বিসিএস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড

যদিও ক্যাডার ও নন-ক্যাডার মিলিয়ে প্রায় ৭-৮ হাজার অফিসার নিয়োগ দিতে পারে, কিন্তু বিসিএস চাকরির জন্য আবেদন করেছে আনুমানিক ৪ লাখ ৭৫ হাজার! আবেদনকারীর এতো সংখ্যা দেখে ভয় পেতে পারেন! আবার কেউ কেউ চিন্তায় পড়ে যেতে পারেন, কীভাবে এতো আবেদনকারীর মাঝে আমি পাশ করবো।

আবেদনকারীর এতো সংখ্যা দেখে ভয় কিংবা চিন্তা করার কিছু নেই! কারণ, আবেদনকারী অনেক বেশি হলেও কিন্তু মূলত আপনার প্রতিযোগিতা হবে ৩০-৪০ হাজার এর সাথে! অনেকে এটাকে অবিশ্বাস্য মনে করতে পারেন; কিন্তু এটাই বাস্তব সত্য। অনেকেই আছে শুধু পরীক্ষার দেয়ার জন্য পরীক্ষা দেয়। অনেকে আছে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য।  কিন্তু কেউ কেউ ক্যাডার বা একটি  সরকারি চাকরি পাওয়ার জন্য পরীক্ষা দেয়।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস!সাথে আছে আরো অ্যাপ অফার: - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস .সর্বমোট ১৫০ টাকা বোনাস পাবেন একজন বিকাশ গ্রাহক। এছাড়া যারা একাউন্ট খুলেছেন তারাও বিকাশ এপ ডাউনলোড করে প্রথম প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস! Bkash App Download Link

মূলত যারা ক্যাডার বা একটি সরকারি চাকরি পাওয়ার জন্য পরীক্ষা দেয় তাদের সাথেই আপনার কম্পিটিশন হবে। বাকিদের আপনার কম্পিটিটর না ভাবাই ভালো! এবার আসুন জেনে নেই কীভাবে আপনি এই ৩০-৪০ হাজার প্রতিযোগীকে পিছনে ফেলে নিজের অবস্থান ঠিক করে নিবেন ৪ মাসের প্রস্তুতিরর মাধ্যমে-

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রস্তুতি শেষ করবেন যেভাবে

আরো পড়ুন- ৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষার সিলেবাস

• আপনি “BCS Preliminary Analysis” বইটি A-Z পর্যন্ত অন্ততপক্ষে দুবার শেষ করুন বোঝে বোঝে পড়ে। তবে না বোঝে মুখস্থ করা চলবে না। বইটি বিগত সালের বিসিএস প্রিলির প্রশ্ন Analysis করে রচিত। ফলে আপনি সহজেই বোঝতে পারবেন কোন টপিকটি বিসিএস প্রিলির জন্য বেশি Important আর কোন টপিকটি তুলনামূলক কম Important।  আর আপনি যদি বোঝতে পারেন যে, কোনটি বেশি Important আর কোনটি কম Important তাহলে আপনার প্রিলির প্রস্তুতি ৫০% এখানেই শেষ!

• এরপর  বিসিএস প্রিলি প্রশ্নব্যাংক বা জব সল্যুশন শেষ করুন  ভালোভাবে ব্যাখ্যাসহ পড়ে। কেননা বিগত সাল থেকে হুবহু অনেক প্রশ্ন কমন আছে। তবে আমি এই ক্ষেত্রে বলবো যাদের হাতে সময় বেশি আছে তাদের জব সল্যুশনটা শেষ করাটাই বেস্ট হবে, আর হাতে সময় কম থাকে অবশ্যই বিসিএস প্রিলি প্রশ্নব্যাংক পড়তে হবে।

• আপনি যদি ম্যাথে বেশি দুর্বল হয়ে থাকেন তাহলে ক্লাস ৪-১০ এর ম্যাথ বইগুলো (সৃজনশীল) শেষ করুন। কারো হাতে এতো বেশি সময় না থাকলে  Shahin’s Math/Professor’s Special Math/MP3 Math/ শেষ করুন। তবে আপনি ক্লাস ৪-১০ এর ম্যাথ বইগুলো ধৈর্য সহকারে শেষ করতে পারেন তাহলে বিসিএস রিটেন ও অন্যান্য চাকরির পরীক্ষায় খুব কাজে দিবে সেটা আমি হলফ করে বলতে পারি।

• প্রতিমাসে আপডেট থাকার জন্য কারেন্ট অ্যাফেয়ার্সটি পড়বে। সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিষয়গুলো সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বের সর্বশেষ আলোচিত খবরাখবর জেনে নিতে হবে।

• তারপর বাজার থেকে ভালো দেখে ১/২টি বিসিএস মডেল টেস্ট কিনে টাইম ধরে নিজে নিজে বাসায় বসে পরীক্ষা দিন। যদি আপনি বাসায় মডেল টেস্ট দিয়ে ১৫০ বার তারও বেশি পান তাহলে ধরে নিবেন আপনার বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি অনেক ভালো। যদি বাসায় ১৫০ এর কম পান তাহলে ধরে নিবেন আপনার প্রস্তুতি আরো ভালো করতে হবে। কেননা, বাসার পরিবেশ আর পরীক্ষার হলে পরিবেশ এক নয়। তাই বাসায় একটু বেশি নাম্বার পেতে হবে। তবে যে কোনো  বিসিএস প্রিলির প্রশ্নে ১২০ নাম্বার পেলে আপনি আপনি রিটেন দিবে পারবেন মোটামুটিভাবে নিশ্চিত থাকুন।

• আপনি মডেল টেস্ট দেওয়ার পর যদি দেখেন যে, বার বার কোনো বিষয়ে কম নাম্বার পাচ্ছেন, তাহলে সেই বিষয়ে বেশি জোর দিন। যেমন ধরুন, আপনি বিসিএস মডেল টেস্টে ইংলিশে কম নাম্বার পেয়েছেন, তাহলে পরবর্তীতে ইংলেশে বেশি জোর দিবেন। তারপর আবার ভিন্ন প্রকাশনীর (অবশ্যই ভালো হতে হবে) আরেকটি মডেল টেস্ট বই কিনে নিজেকে পুনরায় যাচাই করুন।

বিসিএস পরীক্ষার বইসমূহ তালিকা পিডিএফ ডাউনলোড

বিসিএস লিখিত পরীক্ষার বই pdf ডাউনলোড

• প্রফেসরস জব সলিউশন pdf ডাউনলোড

• ওরাকল বিসিএস গাইড পিডিএফ ডাউনলোড

আশা করি আপনি যদি এইভাবে প্রস্তুতি নেন তাহলে ভালো ফল পাবেন। মনে রাখবেন, “কম পড়বেন কিন্তু Important বিষয়গুলো গুছিয়ে পড়বেন।” আরেকটি বিষয় মনে রাখবেন, “একটি ভালো বই আর আরেকটি ভালো সিদ্ধান্ত বদলে দিতে পারে আপনার জীবন।” সকল সৎ পরিশ্রমীর জন্য শুভ কামনা রইল।

আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel