জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রোগ্রামের রেগুলেশন ও সিলেবাস 2019

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স ১ম পর্ব প্রােগ্রামের রেগুলেশন ও সিলেবাস নিয়ে আজ আলোচনা করা হবে৷ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের রেগুলেশন ও সিলেবাস। মাস্টার্স ১ম পর্ব পরীক্ষার রেগুলেশন ও সিলেবাস.

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের রেগুলেশন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ১৯৯২-এর ৪৬ নং ধারা মােতাবেক প্রণীত প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের রেগুলেশন। Preliminary to Master’s Programs Regulation গ্রেডিং ও ক্রেডিট পদ্ধতি অনুযায়ী (প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স ২০১৬-২০১৭ শিক্ষাবর্ষ থেকে কার্যকর)

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রোগ্রামের রেগুলেশন ও সিলেবাস /জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের রেগুলেশন ও সিলেবাস। মাস্টার্স ১ম পর্ব পরীক্ষার রেগুলেশন ও সিলেবাস

আরো পড়ুন – প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স (নিয়মিত) প্রােগ্রামে ভর্তির বিস্তারিত তথ্য

প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের মেয়াদ:

• প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের মেয়াদ হবে এক (০১) বছর।

• প্রিলিমিনারী টু মাস্টাস প্রােগ্রামের মােট ৪টি গ্রুপ থাকবেঃ আর্টস, সােস্যাল সায়েন্স, বিজনেস এ্যাডমিনিস্ট্রেশন এবং সায়েন্স ।

• বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি অনুসারে যে কোন ছাত্র-ছাত্রী এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজসমূহে যে বিষয়ে স্নাতক (পাস) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে সেই বিষয়ে প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রাম ভর্তি হতে পারবে।

• প্রত্যেক প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের শিক্ষাবর্ষ হবে জুলাই-জুন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ের সিলেবাস অনুযায়ী প্রতি শিক্ষাবর্ষে ক্লাস শুরুর পর থেকে মােট ৩০ সপ্তাহ পাঠদান, ৪ সপ্তাহ পরীক্ষার প্রস্তুতি ও ৬ সপ্তাহ চূড়ান্ত বার্ষিক পরীক্ষা কার্যক্রম চলবে। অবশিষ্ট সময়ের মধ্যে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

প্রিলিমিনারী টু মাস্টাস প্রােগ্রামের অন্তর্ভুক্ত বিষয়সমূহ নিম্নরূপ:

Preliminary to Master of Arts

বাংলা, দর্শন, ইংরেজী, ইসলামী শিক্ষা, আরবী ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, পালি, লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্স, সংস্কৃত, ইতিহাস

Preliminary to Master of Social Science

অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজকর্ম, সমাজবিজ্ঞান, নৃ-বিজ্ঞান

Preliminary to Master of Business Administration

হিসাববিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং, মার্কেটিং

Preliminary to Master of Science

ভূগােল ও পরিবেশ বিজ্ঞান, রসায়ন, পদার্থ বিজ্ঞান, গনিত, পরিসংখ্যান, উদ্ভিদবিজ্ঞান, প্রাণিবিজ্ঞান, প্রাণ রসায়ন, মনােবিজ্ঞান, মৃত্তিকা বিজ্ঞান, গার্হস্থ্য অর্থনীতি, কম্পিউটার সায়েন্স

ভর্তির যােগ্যতা: (প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স নিয়মিত)

• জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অধিভুক্ত কোন কলেজ হতে যে বিষয় নিয়ে স্নাতক (পাস) প্রােগ্রাম পরীক্ষায় কৃতকার্য।হয়েছে কেবলমাত্র সে সকল ছাত্র/ছাত্রী এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজসমূহে প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামে ভর্তি হতে পারবে।

• প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামে ভর্তির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক যখন যেভাবে যে বিধি ও নির্দেশ জারী করা হবে তখন তা সেভাবে ছাত্র-ছাত্রী মেনে নিতে বাধ্য হবে।

ভর্তির যােগ্যতা : (প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রাইভেট)

• বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মােতাবেক সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তিন বছর মেয়াদী স্নাতক (পাস) পরীক্ষায় পাশকৃত শিক্ষার্থীরা প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামে ভর্তি হতে পারবে। তবে ব্যবহারিক ও মাঠকর্ম আছে এমন বিষয়ে প্রাইভেট পরীক্ষার্থী হিসেবে ভর্তি হতে
পারবে না।

• প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স (প্রাইভেট) ছাত্র-ছাত্রীরাও প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স (নিয়মিত) ছাত্র-ছাত্রীদের মতাে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স (প্রাইভেট) উত্তীর্ণ হওয়ার পর যে কোন সময়সীমার মধ্যে মাস্টার্স (প্রাইভেট) রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

আরো পড়ুন- প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স (প্রাইভেট) ভর্তি তথ্য

রেজিষ্ট্রেশন: (প্রাইভেট)

•রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদ ৩ বৎসর পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।
• বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মানুযায়ী একজন শিক্ষার্থী কেবলমাত্র একটি বিষয়ে ভর্তি হতে পারবে।
•একজন শিক্ষার্থীকে সর্বোচ্চ ৩ (তিন) শিক্ষাবর্ষের মধ্যে প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স কোর্স সম্পন্ন করতে হবে।

পরীক্ষার সময়কাল

তত্ত্বীয় কোর্স :
•৩/৪ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ৪ ঘন্টা।
•২ ক্রেডিট  কোর্সের জন্য ৩ ঘন্টা।

ব্যবহারিক কোর্স :
•৩/৪ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ৬-১০ ঘন্টা (সংশ্লিষ্ট সিলেবাসে নির্ধারণ করা থাকবে)।
•২ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ৩-৬ ঘন্টা (সংশ্লিষ্ট সিলেবাসে নির্ধারণ করা থাকবে)।

উত্তরপত্র মূল্যায়ন পদ্ধতি:

• প্রতিটি তত্ত্বীয় কোর্সের উত্তরপত্র একক পরীক্ষক দ্বারা মূল্যায়ন হবে। OMR যুক্ত মূল্যায়নকৃত উত্তরপত্র ও নম্বরপত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনা মােতাবেক নির্ধারিত প্রধান পরীক্ষকের নিকট যথারীতি জমা দিতে হবে।

• ব্যবহারিক পরীক্ষার ক্ষেত্রে অভ্যন্তরীণ ও বহিরাগত পরীক্ষক দ্বারা ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা পরিচালিত হবে। পরীক্ষকগণ পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যবহারিক পত্র মূল্যায়ন ও মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করে প্রাপ্ত নম্বর পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ার অব্যবহিত পরে যথারীতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অন লাইনে প্রেরণ করতে হবে।

পাঠদান ও পরীক্ষার মাধ্যম:

পাঠদানের মাধ্যম হবে বাংলা অথবা ইংরেজি। পরীক্ষার উত্তরপত্রে বাংলা অথবা ইংরেজি ভাষার যে কোন একটি মাধ্যমে লিখতে হবে। উদ্ধৃতি ও টেকনিক্যাল শব্দ ব্যতিত একই কোর্সের উত্তরপত্রে বাংলা ইংরেজির মিশ্রণ গ্রহণযােগ্য নয়। তবে ভাষা
সাহিত্যের বিষয়সমূহের ক্ষেত্রে পাঠদান ও পরীক্ষার মাধ্যম সংশ্লিষ্ট ভাষায় হবে।

পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যােগ্যতা :

• প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যােগ্যতা হিসাবে মােট লেকচার ক্লাস/ব্যবহারিক ক্লাসে নূন্যতম ৭৫% উপস্থিত থাকতে হবে। বিশেষ ক্ষেত্রে অধ্যক্ষ বিভাগীয় প্রধানের সুপারিশের ভিত্তিতে উপস্থিতি ৭৫%-এর কম এবং ৬০% বা তার বেশি থাকলে তা বিবেচনার জন্য সুপারিশ করতে পারবেন। ৭৫% এর কম উপস্থিতির জন্য পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষার ফরম পূরণের সময়
৫০০ (পাঁচশত) টাকা নন-কলেজিয়েট ফি অবশ্যই জমা দিতে হবে।

গ্রেডিং সিস্টেম:

উত্তরপত্র নম্বরের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে। একজন পরীক্ষার্থীর তত্ত্বীয়, ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরকে লেটার গ্রেড (Letter Grade) ও গ্রেড পয়েন্টে (Grade Point) রূপান্তর করা হবে। পরীক্ষার্থীর ফলাফল মূল্যায়নের জন্য নিম্নলিখিত লেটার গ্রেড ও সংশ্লিষ্ট গ্রেড পয়েন্ট থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কর্তৃক প্রদত্ত অভিন্ন গ্রেডিং পদ্ধতি অনুযায়ী গাণিতিক
(Numerical) নম্বর, লেটার গ্রেড ও গ্রেড পয়েন্ট হবে।

উত্তীর্ণ হওয়ার যোগ্যতা সমূহ:

প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হলে একজন শিক্ষার্থীকে নিমোক্ত শর্তসমূহ পূরণ করতে হবে।

• CGPA এর ভিত্তিতে চূড়ান্ত ফলাফল নির্ণয় করা হবে।

• একজন শিক্ষার্থীকে সকল তত্ত্বীয় /ব্যবহারিক/মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে অবশই ন্যূনতম GPA ২ পেতে হবে। অন্যথায় সে উক্ত প্রোগ্রামে অকৃতকার্য বলে গণ্য হবে।

• প্রতিটি মৌখিক পরীক্ষায় পৃথকভাবে গ্রেড পয়েন্ট ২ অর্জন করতে হবে। কোন বর্ষে মৌখিক পরীক্ষায় প্রয়ােজনীয় GPA অর্জনে ব্যর্থ হলে রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদ থাকা সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যাচের সাথে মৌখিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের সুযােগ পাবে।

• সকল কোর্সের (তত্ত্বীয় /ব্যবহারিক/ টার্ম পেপার/মৌখিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ বাধ্যতামূলক এবং নুন্যতম গ্রেড পয়েন্ট ২.০০ বা D গ্রেড পেয়ে পাশ করতে হবে। কাঙ্খিত গ্রেড পয়েন্ট (২.০০) না পেলে অথাৎ F গ্রেড পেলে সেই ছাত্র-ছাত্রীকে রেজিস্ট্রেশনের তিন বছর মেয়াদের মধ্যে আবার পরীক্ষা দিয়ে গ্রেড পয়েন্ট ২.০০ (D) অর্জন করতে হবে । উল্লেখ্য যে, এক বা একাধিক কোর্সে F  গ্রেড পেলে কোনক্রমেই শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হতে পাবে না।

প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের পূর্ণাঙ্গ রেগুলেশন ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের সিলেবাস

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রণীত নতুন সিলেবাস অনুযায়ী পাঠদান ও পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে।

এডুকেশন্স ইন বিডির পাঠকদের জন্য প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের সকল সিলেবাস পিডিএফ ফরমেটে নীচে প্রকাশ করা হলো। মাস্টার্স ১ম পর্ব পরীক্ষার সিলেবাস ডাউনলোড করতে নীচে লিংকে ক্লিক করুন

প্রিলিমিনারি টু মাস্টার্স ১ম পর্ব সিলেবাস ডাউনলোড

Preliminary to Master syllabus of Arts 

Preliminary to Master syllabus  of social science 

Preliminary to Master syllabus of business administration 

Preliminary to Master syllabus of science 

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স প্রােগ্রামের রেগুলেশন ও সিলেবাস। মাস্টার্স ১ম পর্ব পরীক্ষার রেগুলেশন ও সিলেবাস