স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান ২০১৯

স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান ২০১৯ । প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর অর্থে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান বিজ্ঞপ্তি ২০১৯৷

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রির উপবৃত্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর ওয়েবসাইট এ এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়।

প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে স্নাতক (পাস) ও সমমানের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হবে। ডিগ্রী ১ম বর্ষ ১৭-১৮, ২য় বর্ষ ১৬-১৭ এবং ৩য় বর্ষ ১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদানের লক্ষে আবেদন ফরম বিতরণ শুরু হয়েছে।

আরো পড়ুন- স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির বিস্তারিত তথ্য ২০১৯

আবেদন ফরম সম্পূর্ণ করে আগামী ১৬/০৫/২০১৯ তারিখর মধ্যে জমা দিতে হবে। এই ফরম শিক্ষার্থীরা স্ব স্ব কলেজে যোগাযোগ করে সংগ্রহ করতে হবে। উপবৃত্তির বার্ষিক হার ৪,৯০০/- প্রত্যকে নিজ নিজ কলেজে দ্রুত যোগাযোগ করে বিস্তারিত জেনে নিন!

স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির নোটিশ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রির উপবৃত্তির নোটিশ

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট উপবৃত্তির বিস্তারিত নিয়মকানুন 

উপবৃত্তির ফরম  ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর অর্থে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর অর্থে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান  ৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ খ্রি. তারিখ রবিবার সকাল ১১:০০ ঘটিকায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় এর সম্মেলন কক্ষ (ভবন নং ৬, ১৮ তলাকক্ষ নং ১৮১৫), বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়।

স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান ২০১৯

১৭-১৮ অর্থ বছরে যারা উপবৃত্তি পাবে:-

স্নাতক পাস ১৫-১৬ সেশন: শেষ কিস্তি।
স্নাতক পাস ১৬-১৭ সেশন: ২য় কিস্তি।
স্নাতক পাস ১৭-১৮ সেশন: ১ম কিস্তি।

উপবৃত্তি প্রদানের তারিখ:

যারা উপবৃত্তি পাবেঃ দারিদ্র ও মেধাবী ৭৫% মেয়ে & ২৫% ছেলে।

উপবৃত্তির পরিমাণঃ ৪৯০০/-

যারা উপবৃত্তি পাবেন তারা সব সময় কলেজে যোগাযোগ রাখবেন। (যারা উপবৃত্তির জন্য মনোনিত হয়েছেন)

উপবৃত্তির টাকা নিজ হাতে ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ৬ জন ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইলে টাকা প্রেরণের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়।

১৭-১৮ সেশনের উপবৃত্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন এর সময়সীমা বিতরণ এর পর নির্ধারণ করা হবে।

  • ২০১৩-১৪ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৫ সালের মে মাসে।
  • ২০১৪-১৫ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৬ সালের জুনের ২৩ তারিখ।
  • ২০১৫-১৬ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৭ সালের জুলাই মাসে।
  • ২০১৬-১৭ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পাশ ডিগ্রীর উপবৃত্তির তথ্য

১৬-১৭ সেশনের উপবৃত্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন এর সময়সীমা বিতরণ এর পর নির্ধারণ করা হবে।

২০১৭-১৮ অর্থবছরের উপবৃত্তি কবে দিবে জানতে আমাদের ওয়েবসাইট এ চোখ রাখুন ।

বাংলাদেশ সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর অর্থায়নে সারা দেশে এই প্রকল্পটি পরিচালিত হয়ে আসছে। স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উপবৃত্তি বিতরণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন:

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর উপবৃত্তি কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর উপদেষ্টা পরিষদের সভাপতি এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে ২০১২-২০১৩ অর্থবছরে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের ১,২৯,৮১০ (এক লক্ষ উনত্রিশ হাজার আটশত দশ) জন ছাত্রীর মাঝে মোট ৭২.৯৫ (বাহাত্তর কোটি পঁচানব্বই লক্ষ) কোটি টাকা উপবৃত্তি বাবদ প্রদান করা হয়। ৩০ জুন, ২০১৩ খ্রি. তারিখে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের ১৫ (পনের) জন ছাত্রীকে সরাসরি উপবৃত্তি বিতরণের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর উপবৃত্তি কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন।

উপবৃত্তি বিতরণ:

২০১৩ খ্রিস্টাব্দের উপবৃত্তি বিতরণ
প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে ২০১২-২০১৩ অর্থবছরে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ে ১,২৯,৮১০ (এক লক্ষ উনত্রিশ হাজার আটশত দশ) জন ছাত্রীর মাঝে মোট ৭২,৯৫,৩২,২০০.০০ (বাহাত্তর কোটি পঁচানব্বই লক্ষ বত্রিশ হাজার দুইশত) টাকা উপবৃত্তি বাবদ প্রদান করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ৩০ জুন, ২০১৩ খ্রি. তারিখে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের ১৫ (পনের) জন ছাত্রীর মাঝে সরাসরি উপবৃত্তি অর্থ বিতরণ করেন।

২০১৫ খ্রিস্টাব্দের উপবৃত্তি বিতরণ:

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় উপবৃত্তি প্রদান কার্যক্রমে ২০১৩-২০১৪ অর্থবছর থেকে ছাত্রীদের পাশাপাশি ছাত্রদেরও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ২০১৩-২০১৪ অর্থবছরে ১৪,৬৭৭ (চৌদ্দ হাজার ছয়শত সাতাত্তর) জন ছাত্র এবং ১,৪৮,৪০২ (এক লক্ষ আটচল্লিশ হাজার চারশত দুই) জন ছাত্রীসহ সর্বমোট ১,৬৩,০৭৯ (এক লক্ষ তেষট্টি হাজার উনাশি) জন স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীর মধ্যে ৯১,৬৫,০৩,৯৮০ (একানব্বই কোটি পঁয়ষট্টি লক্ষ তিন হাজার নয়শত আশি) টাকা উপবৃত্তি বাবদ বিতরণ করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ এপ্রিল, ২০১৫ খ্রিস্টাব্দে ১০ (দশ) জন ছাত্র-ছাত্রীকে সরাসরি উপবৃত্তির অর্থ প্রদান করেন এবং একই দিনে সারাদেশে একযোগে উপবৃত্তি বিতরণ করা হয়।

২০১৬ খ্রিস্টাব্দের উপবৃত্তি বিতরণ:

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের সর্বমোট ২,০৮,৮৮৬ জন (ছাত্রী ১,৬৯,৮৪৬ জন ও ছাত্র ৩৯,০৪০ জন) শিক্ষার্থীর মধ্যে ১১৩,৬১,৩৩,৫৬০.০০ (একশত তের কোটি একষট্টি লক্ষ তেত্রিশ হাজার পাঁচশত ষাট) টাকা বিতরণ করা হয়েছে। ২৩ জুন, ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী উক্ত উপবৃত্তি বিতরণ কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করেন এবং একই দিনে সারাদেশে একযোগে উপবৃত্তি বিতরণ করা হয়।

২০১৭ খ্রিস্টাব্দের উপবৃত্তি বিতরণ:

Prime minister Education Trust Scholarship Notice/ Circular for National University Degree Pass Course Students. প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে ২০১৭ খ্রিস্টাব্দে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের মোট ২,৪৭,৮৩৩ জন (ছাত্রী ১,৮৬,৭১৪ জন ও ছাত্র ৬১,১১৯ জন) শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৩৪,২৪,৩২,৯৮০.০০ (একশত চৌত্রিশ কোটি চব্বিশ লক্ষ বত্রিশ হাজার নয়শত আশি) টাকা বিতরণ করা হয়েছে। ১৩ জুলাই, ২০১৭ খ্রিস্টাব্দে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী জনাব নুরুল ইসলাম নাহিদ এম.পি. মোবাইল একাউন্ট ‘রকেট’ এর মাধ্যমে সারাদেশে একযোগে উপবৃত্তি বিতরণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন।