স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির বিস্তারিত তথ্য 2020

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি তথ্য ২০২০ । প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর অর্থে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান বিজ্ঞপ্তি ২০২০৷ National University, Islamic Arabic University & Dhaka University Affiliated 7 College , Bangladesh Degree Pass Course Student Scholarship/ Stipend Distribution 2020 Circular Notice Available in educationsinbd.com.

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পাশ ডিগ্রি ও সমমান পর্যায়ের উপবৃত্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর ওয়েবসাইটে এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। ডিগ্রী ১ম বর্ষ ১৮-১৯, ২য় বর্ষ ১৭-১৮ এবং ৩য় বর্ষ ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি জন্য অনলাইন নিবন্ধন করতে হবে।

স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান বিজ্ঞপ্তি ২০১৯

আরো দেখুন- স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান ২০২০

Grameenphone এর MyGP এপ ডাউনলোড করে জিতে নিন ফ্রি ইন্টারনেট এবং ফ্রি পয়েন্ট MyGP App Download Now শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস!সাথে আছে আরো অ্যাপ অফার: - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস .সর্বমোট ১৫০ টাকা বোনাস পাবেন একজন বিকাশ গ্রাহক। এছাড়া যারা একাউন্ট খুলেছেন তারাও বিকাশ এপ ডাউনলোড করে প্রথম প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস! Bkash App Download Link

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক স্নাতক (পাস) ও সমমানের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হবে। ডিগ্রী ১ম বর্ষ ১৮-১৯, ২য় বর্ষ ১৭-১৮ এবং ৩য় বর্ষ ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদানের লক্ষে অনলাইন আবেদন শুরু হবে। যার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রী ৩য় বর্ষ ১৭-১৮, ২য় বর্ষ ১৬-১৭ এবং ১ম বর্ষ 2018-2019 শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী তারা এই উপবৃত্তির অন্তর্ভুক্ত হবে ।

অনলাইনে আবেদন শুরু হবে ১৬ আগষ্ট ২০২০ থেকে এবং শিক্ষার্থীরা আবেদন ফরম সম্পূর্ণ করে আগামী ১৫/০৯/২০২০ তারিখর মধ্যে জমা দিতে হবে। এই ফরম শিক্ষার্থীরা স্ব স্ব কলেজে যোগাযোগ করে সংগ্রহ করতে হবে। উপবৃত্তির বার্ষিক হার ৪,৯০০/- প্রত্যেকে নিজ নিজ কলেজে যোগাযোগ করে এ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবে।

২০২০ সালের স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক ২০১৬-১৭,
২০১৭-১৮ এবং ২০১৮-১৯ (৩য় বর্ষ, ২য় বর্ষ এবং ১ম বর্ষ) শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ২০২০ সালে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হবে।
উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য শিক্ষার্থীকে http://estipend.pmeat.gov.bd লিংক-এ প্রবেশ করে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে ।

নিবন্ধনের জন্য প্রয়ােজনীয় নির্দেশনা বর্ণিত ওয়েবসাইটে ব্যবহার নির্দেশিকায় পাওয়া যাবে । উক্তনসফটওয়্যারে তথ্য এন্ট্রির জন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের আলাদাআলাদা User ID ও password শিমই প্রেরণ করা হবে। ব্যবহার নির্দেশিকার শর্তাবলি অনুসরণপূর্বক আগামী ১৬/০৮/২০২০ খ্রি: থেকে ১৫/০৯/২০২০ খ্রি: তারিখ পর্যন্ত সিস্টেম ব্যবহার করে অনলাইনে শিক্ষার্থীরা আবেদন
করতে পারবে। সামগ্ৰীক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আগামী ৩০/০৯/২০২০ তারিখের মধ্যে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা সিস্টেম ব্যবহার করে অনলাইনে প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করা হলাে।

উল্লেখ্য, নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকার কোন হার্ড কপি প্রেরণের প্রয়ােজনীয়তা নাই ।

স্নাতক  ডিগ্রি (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির নোটিশ ২০২০

স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির নোটিশ ২০২০

উপবৃত্তির ফরম  ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন

উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য শিক্ষার্থীকে http://estipend.pmeat.gov.bd এ প্রবেশ করে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে। এছাড়া e-Stipend Management Systemঅ্যাপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবে।

প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক ২০১৮ -১৯, ২০১৭-১৮ ও ২০১৬ -১৭ (১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষ) শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে অনলাইনে নিবন্ধন প্রসংগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক ২০১৬ -১৭, ২০১৭-১৮ এবং ২০১৮ -১৯ (১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষ) শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হবে।

কীভাবে আবেদন করবেন ব্যবহার নির্দেশিকা পেতে এখানে ক্লিক করুন http://estipend.pmeat.gov.bd/assets/file/e-Stipend_User_Manual_BNG_v3.1.pdf

২০১৮-১৯, ২০১৭ -১৮ এবং ২০১৬-১৭ (১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষ) শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও প্রতিষ্ঠান কে উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য নিম্ন বর্ণিত শর্তাবলি পূরণ করতে হবে :

• অস্বচ্ছল মুক্তিযােদ্ধাদের সন্তান, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী, এতিম, নদীভাঙ্গন কবলিত পরিবারের সন্তান এবং দুঃস্থ পরিবারের সন্তানগণ উপবৃত্তি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবে।

• উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য নির্বাচিত শিক্ষার্থীর অভিভাবকের বার্ষিক আয় মােট ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ) টাকার কম হতে হবে। অভিভাবক/পিতামাতার মােট জমির পরিমাণ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসকারী ০.০৫ (পাঁচ) শতাংশ এবং অন্যান্য এলাকায় ০.৭৫ (পঁচাত্তর) শতাংশের কম জমি থাকতে হবে।

• আবেদনকারীকে জমির পরিমাণ ও বার্ষিক আয় সম্পর্কিত প্রত্যয়নপত্র সংশ্লিষ্ট এলাকার সিটি কর্পোরেশন/পৌরসভার মেয়র/কাউন্সিলর/ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/সংশ্লিষ্ট ভূমি কর্মকর্তা/সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান থেকে সনদপত্র সংযুক্ত করতে হবে।

• উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য শিক্ষার্থীকে স্নাতক (পাস)/সমমান (ফাজিল) পর্যায়ে অধ্যয়নরত নিয়মিত শিক্ষার্থী হতে হবে।

• নিয়মিত শিক্ষার্থী হিসেবে শ্রেণীকক্ষে (ক্লাস) কমপক্ষে ৭৫% উপস্থিত থাকতে হবে। এক্ষেত্রে আবশ্যিক বিষয় হিসেবে (বাংলা/ইংরেজি) গনণা করা যেতে পারে।

• ছাত্র-ছাত্রীর ভর্তিকৃত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হালনাগাদ (জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়/ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বীকৃতি এবং পাঠদানের অনুমতি থাকতে হবে।

• সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে কোনরূপ টিউশন ফি গ্রহণ করা যাবে না।

• বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট হতে ব্যাংকের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের স্ব-স্ব ব্যাংক হিসাবে প্রেরণ করা হবে।

• তৃতীয় লিঙ্গধারী সকল শিক্ষার্থী উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য বিবেচিত হবে এবং এদের তালিকা পৃথকভাবে প্রেরণ করতে হবে।

• শিক্ষার্থী নির্বাচনের জন্য সরকারি/বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুটি কমিটি থাকবে।

দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থী নির্বাচনের নিয়মাবলিঃ

স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক নির্বাচন

• প্রথমত, সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তিকৃত প্রত্যেক শিক্ষাবর্ষের মােট শিক্ষার্থীর মধ্য হতে উপরিল্লিখিত শর্তাবলীর আলােকে শিক্ষার্থীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে যাচাই করে মােট আবেদিত ছাত্র এবং ছাত্রীর পৃথক তালিকা প্রস্তুত করতে হবে।

• প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ছাত্রী তালিকাকে ১০০% ধরে তার মধ্য হতে ৭৫% ছাত্রীকে উপবৃত্তির জন্য নির্বাচন করতে হবে।

• একইভাবে, প্রাথমিক নির্বাচিত ছাত্র তালিকাকে ১০০% ধরে তার মধ্য হতে ২৫% ছাত্রকে উপবৃত্তির জন্য নির্বাচন করতে (উদাহরণঃ ধরা যাক, ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিকৃত ছাত্রছাত্রীর সংখ্য ১৫০ জন। তার মধ্যে উপবৃত্তির জন্য আবেদন করেছেন ৪০ জন ছাত্রী এবং ৫০ জন ছাত্র। উপবৃত্তি প্রাপ্তির মানদণ্ড ও শর্তাবলীর আলােকে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ছাত্রী।সংখ্যা ৩৫ জন এবং ছাত্র সংখ্যা ৪০ জন। তাহলে, নির্বাচিত ছাত্রীর ৭৫% অর্থাৎ ৩৫x৭৫/১০০ = ২৬ জন এবং নির্বাচিত ছাত্রের ২৫% অর্থাৎ ৪০x২৫/১০০ = ১০ জন। সুতরাং মােট উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থী হবে ২৬+১০ = ৩৬ জন।)

স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের চুড়ান্ত নির্বাচন

• দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থী নির্বাচন কমিটি উপবৃত্তির জন্য ১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী নির্বাচন চুড়ান্ত করবেন এবং নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের নাম ও শ্রেণী রােল নম্বর চূড়ান্ত করবেন। নির্বাচন কমিটি উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর তালিকা চূড়ান্তভাবে প্রস্তুতকালে একটি রেজুলেশন করবেন। উক্ত রেজুলেশনের কপি এবং উপবৃত্তির জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকার (PMEAT:DF-2 অনুযায়ী) কপি প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট অফিসে প্রেরণ করতে হবে। উক্ত রেজুলেশন ও
উপবৃত্তির জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীর তালিকা সংশ্লিষ্ট কলেজের অধ্যক্ষ ও সংশ্লিষ্ট উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সংরক্ষণ করবেন। উল্লেখ্য যে, রেজুলেশন এর কপি ব্যতিত নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা গ্রহণযােগ্য হবে না।

• উপরিল্লিখিত নীতি ও শর্তাবলি অনুসরণ করে সংযুক্ত ছক মােতাবেক উপজেলার সংশ্লিষ্ট সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপবৃত্তি প্রাপ্তির জন্য ১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষের যােগ্য শিক্ষার্থী তালিকা আগামী ১৫/০৯/২০২০ খ্রি. তারিখের মধ্যে অনলাইনে প্রেরণ করতে হবে।

স্নাতক ডিগ্রী (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান ২০২০

২০২০ অর্থ বছরে যারা উপবৃত্তি পাবে:-

স্নাতক পাস ১৬-১৭ সেশন: শেষ কিস্তি।
স্নাতক পাস ১৭-১৮ সেশন: ২য় কিস্তি।
স্নাতক পাস ১৮-১৯ সেশন: ১ম কিস্তি।

উপবৃত্তি প্রদানের তারিখ: 

যারা উপবৃত্তি পাবেঃ দারিদ্র ও মেধাবী ৭৫% মেয়ে & ২৫% ছেলে।

উপবৃত্তির পরিমাণঃ ৪৯০০/-

যারা উপবৃত্তি পাবেন তারা সব সময় কলেজে যোগাযোগ রাখবেন। (যারা উপবৃত্তির জন্য মনোনিত হয়েছেন) উপবৃত্তির টাকা নিজ হাতে ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ৬ জন ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইলে টাকা প্রেরণের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়।

  • ২০১৩-১৪ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৫ সালের মে মাসে।
  • ২০১৪-১৫ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৬ সালের জুনের ২৩ তারিখ।
  • ২০১৫-১৬ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৭ সালের জুলাই মাসে।
  • ২০১৬-১৭ অর্থবছরের উপবৃত্তি দেওয়া হয়েছিল ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে।
  • ১৮-১৯ সেশনের উপবৃত্তির জন্য প্রাথমিক আবেদন এর সময়সীমা বিতরণ এর পর নির্ধারণ করা হবে।

বাংলাদেশ সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট এর অর্থায়নে সারা দেশে এই প্রকল্পটি পরিচালিত হয়ে আসছে। স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট কর্তৃক ২০১৮ -১৯, ২০১৭-১৮ ও ২০১৬ -১৭ (১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষ) শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে।

আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel