৩০ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজে কোন শ্রেণির কতদিন ক্লাস

দীর্ঘ ১ বছর বন্ধ রাখার পর আগামী ৩০ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজ খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ৩০ মার্চ থেকে পর্যায়ক্রমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খোলা হবে। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত স্কুল-কলেজ খোলার জন্য আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে এসব তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এসময় কোন শ্রেণির ক্লাস সপ্তাহে কয়দিন হবে তা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সপ্তাহে ৫ দিনের প্রতিদিন ক্লাস হবে। ১ম থেকে চতুর্থ সপ্তাহে ১দিন করে ক্লাস হবে। প্রাক প্রাথমিককে এখন স্কুলে আনা হবে না, তাদের কবে আনা হবে তা পরে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

আরো পড়ুন- শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে ৩০ মার্চ

শিক্ষামন্ত্রী আরও জানান, দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস হবে সপ্তাহে ৬ দিন। নবম ও একাদশ শ্রেণির ক্লাসও অন্যান্য শ্রেণির চেয়ে বেশি হবে। প্রথমে সপ্তাহে ২ দিন করে। কেননা তাদের সামনে পরীক্ষার বিষয় থাকবে। আর ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণি সপ্তাহে ১দিন করে ক্লাস হবে। পরে এই ক্লাসের সংখ্যা বাড়বে।

বিকাশ এপ ডাউনলোড করে লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস, সাথে ৫০ টাকা বোনাস একদম ফ্রী - Bkash App Download Link শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, টিকার কারণে সংক্রমন একদম কমে এলে ২ সপ্তাহ পরেই আমরা স্বাভাবিক কার্যক্রমে চলে যাব। আর যদি সংক্রমন না কমে তাহলে যতদিন ঝুঁকি থাকবে তা বিবেচনায় নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তিনি বলেন, ৩০ মার্চ থেকে ৫ম, ১০ম ও ১২শ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্লাস প্রতিদিন হবে। আর অন্যন্য শ্রেণির ক্লাস প্রথমে সপ্তাহে একদিন হবে। পরে তা দুই দিন হবে। ৬০ কর্মদিবস ক্লাস হওয়ার পরেই এসএসসি পরীক্ষার অনুষ্ঠিত হবে। ৬০ দিন ক্লাসের পর শিক্ষার্থীরা ২ সপ্তাহ সময় পাবেন প্রস্তুতির জন্য।

আরো পড়ুন- রমজান মাসে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে

মন্ত্রী আরও বলেন, রোজায়ও ক্লাস থাকবে। শুধু ঈদের সময় বন্ধ থাকবে। রোজায় ছুটি থাকবে না। আমরা ছোটবেলায় দেখেছি রোজায় ছুটি থাকতো না। আমাদের শিশু কিশোররাও বাসায় বসে থেকে হাপিয়ে উঠেছে। মনে করছি তারা আপত্তি করবে না।

মন্ত্রী জানান, ৩০ মার্চ থেকে ৫ম, ১০ম ও ১২শ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্লাস প্রতিদিন হবে। আর অন্যন্য শ্রেণির ক্লাস প্রথমে সপ্তাহে একদিন হবে। পরে তা দুই দিন হবে। আর পর্যায়ক্রমে স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু হবে। আর প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির ক্লাস শুরু হলেও প্রাক প্রাথমিক শ্রেণির ক্লাস শুরু হচ্ছে না।

মন্ত্রী আরও বলেন, ১০ম ও ১২শ শ্রেণির ক্লাস সপ্তাহে ছয় দিন হবে। বাকি শ্রেণির ক্লাস প্রথমে সপ্তাহে একদিন হবে। পরে সপ্তাহে দুই দিন হবে। পর্যায়ক্রমে শিক্ষার্থীদের স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু হবে। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা যখনই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলি এরপর ৬০ কর্মদিবস ক্লাস হয়েই এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

আরো পড়ুন- শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ২৯ মার্চ পর্যন্ত

তিনি বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খোলার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। আমরা ৩০ মার্চের মধ্যে শিক্ষক কর্মচারীদের টিকার আওতায় নিয়ে আসবো।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সভাপতিত্বে এ সভায়, স্বারষ্ট্রমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খান, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদ সচিব এবং দুই মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব, পুলিশের আইজিসহ সংশ্লিষ্টরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

Educations in BD ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel Grameenphone এর মাইজিপি এপ ডাউনলোড করে জিতে নিন ৩ জিবি ফ্রি ইন্টারনেট এবং ফ্রি পয়েন্ট MyGP App Download Now

Leave a Reply