Fri. Dec 13th, 2019

Educations in Bd

Online Educations in Bd | Getting Education Through Online

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রেডিং সিস্টেম ও CGPA নির্ণয় করার পদ্ধতি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিজিপিএ নির্ণয় করার নিয়মকানুন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স, ডিগ্রী, মাস্টার্সের গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি জেনে নিন এখানে।

গ্রেডিং সিস্টেম:

৮০ বা তদুর্ধ = A+ = ৪.০০ বা ১ম বিভাগ
৭৫ থেকে ৭৯ = A = ৩.৭৫ বা ১ম বিভাগ
৭০ থেকে ৭৪ = A- = ৩.৫০ বা ১ম বিভাগ
৬৫ থেকে ৬৯ = B+ = ৩.২৫ বা ১ম বিভাগ
৬০ থেকে ৬৪ = B = ৩.০০ বা ১ম বিভাগ
৫৫ থেকে ৫৯ = B- = ২.৭৫ বা ২য় বিভাগ
৫০ থেকে ৫৪ = C+ = ২.৫০ বা ২য় বিভাগ
৪৫ থেকে ৪৯ = C = ২.২৫ বা ২য় বিভাগ
৪০ থেকে ৪৫ = D = ২.০০ বা ৩য় বিভাগ
৩৯ থেকে ০ = Fail = ০.০০

CGPA নির্ণয়:

বিকাশ একাউন্টে ফ্রি ১৫০ টাকা বোনাস নিয়ে নিন !!নতুন বিকাশ অ্যাপ থেকে নিজের একাউন্ট খুলুন মিনিটেই, শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে। কোথাও যেতে হবে না! আর অ্যাপ থেকে একাউন্ট খুলে প্রথম লগ ইনে পাবেন ১০০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস! - প্রথম বার ২৫ টাকা রিচার্জে ৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস Bkash App Download Link

১ বছরের CGPA নির্ণয : এক বছরে মোট অর্জিত পয়েন্ট এক বছরে মোট অর্জিত ক্রেডিট।

এক বছরে মোট অর্জিত পয়েন্ট : কোন বিষয়ে প্রাপ্ত পয়েন্টকে ঐ বিষয়ের ক্রেডিট দিয়ে গুন। এভাবে সকল সাবজেক্টের পয়েন্টকে তাদের ক্রেডিট দিয়ে গুন দিয়ে সব গুনফলকে যোগ করে পাওয়া যাবে “এক বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট”।
.
এক বছরের মোট অর্জিত ক্রেডিট : পাশ কৃত সকল বিষয়ের ক্রেডিট যোগ করে পাওয়া যাবে “এক বছরের মোট অর্জিত ক্রেডিট”

Ex : বিষয়ভিত্তিক পয়েন্ট × তার ক্রেডিট :
A-= 3.50×4 =14 ;
B+=3.25×4=13;
A+=4.00×4 =16;
B+=3.25×4=13;
A-=3.50×4=14;
B+=3.25×4 =13;

সুতরাং মোট অর্জিত পয়েন্টস :
14+13+16+13+14+13=83

এবং মোট অর্জিত ক্রেডিট :
4+4+4+4+4+4 = 24

মোট জিপিএ দাড়ায় : 83÷24=3.45
.
৪ বছরের CGPA নির্নয়: চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট (প্রথম বর্ষ + ২য় বর্ষ + ৩য় বর্ষ + চতুর্থ বর্ষ) ÷ পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট সংখ্যা।

চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট : জিপিএ নির্নয়ের প্রথম ধাপের ন্যায় সকল বর্ষের “মোট অর্জিত পয়েন্টস” গুলো পর পর যোগ করলে পাবেন চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্ট।

পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট : পুরো কোর্সের সকল পাশকৃত বিষয়ের ক্রেডিটের যোগ ফল হলো পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট।

Ex : চার বছরের মোট অর্জিত পয়েন্টস : 83+85+81+79=328

পুরো কোর্সের মোট অর্জিত ক্রেডিট :
24+24+26+28=102

অতএব, মোট CGPA : 328÷102=3.21

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি

GPA(Grade Point Average) এবং CGPA(Cumulative Grade Point Average) দুটি শব্দের সাথে আমরা পরিচিত। এর মধ্যে জিপিএ আমরা এসএসসি ও এইচএসসি পাস করার পর হিসেব করতে পারলেও অনার্স ডিগ্রী মাস্টার্স এ এসে বুঝতে পারি না সিজিপিএ কিভাবে বের করব।

৪ বছরের কোর্সে প্রতি বছর আপনি যে মার্ক অর্জন করবেন সেটার গড়কে বলা হয় GPA আর ৪ বছরের মোট রেজাল্টের গড়কে বলা হয় CGPA.

অনার্স ডিগ্রী মাস্টার্সের প্রতি ইয়ারে সাবজেক্ট ভিত্তিক ক্রেডিট থাকে। এটা আপনার সিলেবাসে প্রতিটা সাবজেক্ট এর পাশেই লেখা দেখবেন।

কোর্স ভিত্তিক নাম্বারের ভিন্নতা থাকতে পারে। যেমন সব কোর্স ১০০ নাম্বারের হয় না। কিছু কোর্স থাকে দুটো ৫০ করে ১০০ নাম্বার। এক ইয়ারে আপনি যে বিষয়গুলা পড়বেন এদের প্রত্যেকটিকে একেকটি কোর্স বলা হয়।

তাহলে ধরি আপনি প্রথম বর্ষে মোট ৬ টি সাবজেক্ট পড়ছেন। প্রত্যেকটা ৪ ক্রেডিট করে মোট ২৪ ক্রেডিট। এবার পরীক্ষায় প্রত্যেক সাবজেক্টে আপনি পেয়েছেন ৪০ করে। তাহলে ৪০ পেলে ২ পয়েন্ট পেয়েছেন প্রতি সাবজেক্টে। তাহলে ৬টি সাবজেক্টে পেয়েছেন (৬*৮) মানে ৪৮ পয়েন্ট। উপরে লক্ষ্য করুন প্রতিটা সাবজেক্ট এর পাশে ঠিক কত নাম্বার পেলে কত পয়েন্ট হবে সেটা লেখা আছে। তাহলে ৪৮/২৪ তাহলে আপনার সিজিপিএ ২।

এবার প্রতিটা সাবজেক্টে যদি আপনি ৮০ নাম্বার করে পান আপনার পয়েন্ট প্রতিটায় হবে ১৬ করে। তাহলে ৬টি সাবজেক্ট কে গুণ করবেন ১৬ দিয়ে। মানে ১৬*৮=১২৮/২৪= ৪ মানে আপনার সিজিপিএ ৪।

আশা করি যারা গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি জানতেন না তারা অনেকটাই জানতে পেরেছেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল নোটিশ সবার আগে বিস্তারিত জানতে আমাদের ওয়েবসাইট এর সাথেই থাকুন৷ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রেডিং সিস্টেম ও সিজিপিএ নির্ণয় করার পদ্ধতি।

আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

Posts Slider

Single Column Posts

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএ ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল -২০২০। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএ (বাংলা মাধ্যম) প্রােগ্রামের আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের যাচাই-বাছাই ও মৌখিক পরীক্ষা। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির...

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এমএ এবং এমএসএস মাস্টার্স শেষ পর্ব ১ বছর মেয়াদি প্রোগ্রামে ভর্তি সংশোধিত বিজ্ঞপ্তি ২০১৯। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বাউবি মাস্টার্স শেষ পর্ব ভর্তি...

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার রুটিন ২০২০ । বাংলাদেশ বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (বাউবি) এর এসএসসি প্রোগ্রামের ১ম ও ২য় বর্ষ পরীক্ষার সময়সূচী-২০২০। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের...

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বাউবি এমএ এবং এমএসএস প্রােগ্রাম (১ম পর্বঃ১ বছর মেয়াদি) ভর্তি বিজ্ঞপ্তি শিক্ষাবর্ষ: ২০১৯-২০২০। বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এমএ এবং এমএসএস মাস্টার্স প্রােগ্রাম ১ম...

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ বছর মেয়াদি বিএ (অনার্স) এবং বিএসএস (অনার্স) প্রোগ্রামে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি শিক্ষাবর্ষ: ২০১৯-২০২০৷ বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় বাউবি অনার্স ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০১৯। বাংলাদেশ...