শ্রেণি কার্যক্রম চালু করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মনিটরিং টিম গঠনের নির্দেশ

কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় জনস্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণি কার্যক্রম চালুকরণে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মনিটরিং টিম গঠনের নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। মাউশির ওয়েবসাইটে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে।

প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে দেশের সকল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর আগামী ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পুণরায় চালুর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

সে বিবেচনায় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীন মাঠ পর্যায়ের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান (সরকারি ও বেসরকারি) কে মাউশি অধিদপ্তর হতে প্রেরিত সূত্রাক্ত কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় জনস্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালুকরণ সংক্রান্ত নির্দেশনা ও কার্যক্রমসমূহ যথাযথ ও সঠিকভাবে প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে মেনে চলা এবং তা অনুসরণের জন্য তাঁর প্রতিষ্ঠানে একটি মনিটরিং টিম গঠনের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হলাে।

এদিকে করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় জনস্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনপূর্বক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের রুটিন প্রণয়ন নির্দেশনা প্রকাশ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর মাউশি। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে ১ম থেকে এইচএসসি পর্যায়ের ক্লাস রুটিন প্রণয়নে ১১ দফা নির্দেশনা প্রকাশ করা হয়েছে।

বিকাশ এপ ডাউনলোড করে লগ ইনে পাবেন ১৫০ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস, সাথে ৫০ টাকা বোনাস একদম ফ্রী - Bkash App Download Link শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD এর চ্যানেলের সাথেই থাকুন। আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে, ২০২১ ও ২০২২ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসবে। ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ, ৬ ঠ, ৭ম, ৮ম ও ৯ম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে ০১ (এক) দিন প্রতিষ্ঠানে আসবে। সপ্তাহে প্রতিদিন নির্দিষ্ট শ্রেণিতে ২ (দুই)টি করে ক্লাস ধরে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রুটিন প্রণয়ন করবে।

রুটিনের সাথে প্রযােজ্য ক্ষেত্রে ব্যবহারিক ক্লাসসমূহ নির্ধারণ করা যেতে পারে।  যেসকল প্রতিষ্ঠানে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্তর সংযুক্ত রয়েছে সেসকল প্রতিষ্ঠান ঐ সকল স্তরের জন্য নির্ধারিত ক্লাসসমূহ সমন্বয় করে রুটিন প্রণয়ন করবেন;

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ চলমান ডিগ্রি, সম্মান ও মাস্টার্স পরীক্ষার সাথে সমন্বয় সাপেক্ষে ২০২১ ও ২০২২ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য রুটিন প্রণয়ন করে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনা করবে;

রুটিন প্রণয়নের ক্ষেত্রে লক্ষ্য রাখতে হবে যেন শিক্ষার্থীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ/প্রস্থান/অবস্থানের সময় স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের মত কোনাে বিষয় না ঘটে।রুটিন এমন ভাবে প্রস্তুত করতে হবে যেন ভিন্ন ভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ভিন্ন ভিন্ন সময়ে প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করে এবং প্রতিষ্ঠান থেকে বের হয়;

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আপাতত এসেম্বলি বন্ধ থাকবে। প্রতিদিন নির্ধারিত চেকলিস্ট অনুযায়ী তথ্য প্রেরণ করতে হবে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত ক্লাস রুটিন তৈরীর ক্ষেত্রে উপর্যুক্ত বিষয় সমূহ অনুসরণ করতে হবে।

Educations in BD ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel

Leave a Reply