প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সাজেশন ২০১৯

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সাজেশন ২০১৯ আপনারা যারা প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ সাজেশন খুঁজছেন তারা জানেন প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি 2018 প্রকাশিত হওয়ার পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাজস্ব খাতভুক্ত সহকারি শিক্ষক নিয়োগের অনলাইন আবেদন শেষ হয়েছে। ১লা আগস্ট থেকে ৩০শে আগস্ট ২০১৮ পর্যন্ত এ আবেদন প্রক্রিয়া চলমান ছিলো। এই সার্কুলারে নিয়োগ দেয়া হবে ১২০০০ শিক্ষক।
প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০১৯ 

আপনারা যারা প্রাথমিক নিয়োগ পরীক্ষা দেবেন তারা নিশ্চয়ই পড়াশোনায় ব্যাস্ত। প্রয়োজন প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সাজেশন।এখন থেকেই নিয়মিত পড়াশোনা করলে প্রস্তুতির জন্য যথেষ্ট সময় পাওয়া যাবে। আপনাদের পরীক্ষার প্রস্তুতিতে কিঞ্চিৎ সহযোগিতা করার জন্য প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ সাজেশন ২০১৮ সংগ্রহ করতে যোগাযোগ করেছিলাম রংপুর সরকারি কলেজের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক আমার ঘনিষ্ঠ বন্ধু নিয়ামুল তানভীরের সঙ্গে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সাজেশন ২০১৯

ব্যাস্ততার মাঝেও তিনি সময় করে আপনাদের জন্য প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সাজেশন লিখে দিয়েছেন। আপনার নিজের সংগৃহীত প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ সাজেশন এর সাথে এটিও মিলিয়ে নিয়ে গাইডলাইনগুলো ফলো করলে আশাকরি কাঙ্ক্ষিত সাফল্য লাভ করা সহজ হবে। ভালোভাবে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারবেন। চলুন তাহলে দেরি না করে দেখা যাক তাঁর দেয়া প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার সাজেশন।

গত ৩০/০৭/২০১৮তারিখে সরকারি প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০১৮ এর জন্য প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০১৮ প্রকাশিত হয়েছে। চাকরি প্রার্থীদের মধ্যে যারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক পদে শিক্ষকতা করতে চান তারা কিভাবে প্রস্তুতি গ্রহণ করবেন তা নিয়েই আজকের এই আয়োজন অর্থাৎ প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ সাজেশন।

পরীক্ষার বিষয়বস্তু এবং ধরন পূর্বের মতোই থাকছে। এবারো ৮০ নম্বরের লিখিত ও ২০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষাসহ মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। লিখিত পরীক্ষা হবে বহুনির্বাচনী বা MCQ পদ্ধতিতে। প্রশ্ন করা হবে বাংলা, ইংরেজি, গণিত এবং সাধারণ জ্ঞান এই চারটি বিষয় থেকে। প্রতিটি বিষয় থেকে ২০ টি করে মোট ৮০টি MCQ প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১। বরাবরের মতো এবারও নেগেটিভ মার্কিং থাকছে। একটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা যাবে ০.২৫ নম্বর। ফলে চারটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা হবে ১ নম্বর। MCQ প্রশ্নের জন্য সময় থাকবে ৮০ মিনিট। অর্থাৎ প্রতিটি প্রশ্নে সময় পাওয়া যাবে ১ মিনিট। তাই কোনো প্রশ্নে সময় নস্ট করা যাবেনা। সহজ প্রশ্নগুলো শুরুতেই দাগিয়ে কঠিন প্রশ্নগুলো রেখে দিতে হবে পরে উত্তর দেয়ার জন্য।

এখন প্রস্তুতি কিভাবে শুরু করবেন? প্রথমেই বিগত বছরগুলোর প্রশ্ন সমাধান করে ফেলুন। সেই সাথে বিসিএস প্রিলিমিনারি প্রশ্নও দেখতে পারেন।

আরো দেখুন- প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ ২০১৯ সাজেশন

বাংলা ব্যাকরণ ও সাহিত্য :
ব্যাকরণ অংশ থেকে বাংলা ভাষার উদ্ভব, সাধু ও চলিত ভাষা, বাংলা ভাষার শব্দ ভান্ডার, শব্দের শ্রেণীবিভাগ, পারিভাষিক শব্দ, ধ্বনিতত্ত্ব, ধ্বনির পরিবর্তন, ণত্ব ও ষত্ব বিধান, সন্ধি, পুরুষ ও স্ত্রী বাচক শব্দ, সমাস,উপসর্গ, প্রত্যয় ও পদ প্রকরণ, ক্রিয়াপদ,কারক ও বিভক্তি, বাক্য ও বানান শুদ্ধি,বিপরীত শব্দ, বাগধারা, এক কথায় প্রকাশ, সমার্থক শব্দ, প্রবাদ প্রবচন থেকে পড়তে হবে। ব্যাকরণ অংশটুকু এমনভাবে পড়তে হবে যেনো প্রশ্ন দেখা মাত্রই উত্তর করতে পারেন। ব্যাকরণের প্রস্তুতির জন্য পড়তে পারেন বোর্ড প্রণীত নবম দশম শ্রেণীর বাংলা ভাষার ব্যাকরণ। এছাড়াও পড়তে পারেন ড: সৌমিত্র শেখরের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য জিজ্ঞাসা। এই বইটি আপনাকে বাংলা সাহিত্যের প্রস্তুতি নিতেও সাহায্য করবে।

উল্লেখযোগ্য কবি ও সাহিত্যিকদের জীবন ও সাহিত্যকর্ম সম্পর্কেও জানতে হবে। এছাড়া ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের গল্প, গান, কবিতা, নাটক ও উপন্যাসের রচয়িতা থেকেও প্রশ্ন আসে।

ইংরেজি :
বেসিক গ্রামার, Tense, Parts of speech, Right forms of verb, Subject verb agreement, Transformation of sentence, Voice, Narration সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা থাকতে হবে। সাধারণত Group verbs, Appropriate preposition, Idioms and phrases, Spelling, Antonym, Synonym, Sentence Correction ইত্যাদি থেকে প্রশ্ন বেশি আসে। এজন্য আপনারা English for competitive exam বইটি পড়তে পারেন।

গণিত :
গণিতের প্রস্তুতির জন্য আপনারা ৮ম,৯ম,১০ম শ্রেণীর গণিতের বই অনুসরণ করতে পারেন। এছাড়া ওরাকল বিসিএস প্রিলিমিনারি গাণিতিক যুক্তি ও গাণিতিক দক্ষতা বইটিরও সাহায্য নিতে পারেন। পরীক্ষার হলে কোনো ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে দেয়া হবেনা। তাই গণিতের প্রস্তুতি এমনভাবে নিতে হবে যেনো মুখে মুখেই বেশিরভাগ অংক সমাধান করা যায়। বারবার চর্চা করলেই এটা সম্ভব। সুদকষা, ঐকিক নিয়ম, লাভ ক্ষতি, ভগ্নাংশ, অনুপাত, ধারা এবং বীজগণিতের প্রথম পর্যায়ের কিছু অংক থেকে প্রশ্ন আসে। অনেক সময় দশমিকের গুণ ভাগও থাকে। জ্যামিতির সাধারণ সূত্র, উপপাদ্য ও সংজ্ঞা, পরিমিতি থেকেও প্রশ্ন আসে।

সাধারণ জ্ঞান :
বাংলাদেশের জাতীয় বিষয়াবলী, মুক্তিযুদ্ধ, ভাষা আন্দোলন তথা অভ্যুদয়ের ইতিহাস ভালো করে পড়তে হবে। আন্তর্জাতিক অংশে দক্ষিণ এশিয়া ও এশিয়া সংক্রান্ত প্রশ্ন বেশি আসে। খেলাধুলা, আন্তর্জাতিক সংস্থা, পুরস্কার, দিবস ইত্যাদি থেকেও প্রশ্ন আসে। সাধারণ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট প্রশ্ন যেমন বিভিন্ন আবিষ্কার, রোগব্যাধি, খাদ্যগুণ, দুর্যোগ ব্যাবস্থাপনা,ভূগোল, কম্পিউটার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি থেকে প্রশ্ন আসতে পারে।

সাধারণ জ্ঞানের প্রস্তুতির জন্য আজকের বিশ্ব বা এমপি থ্রি পড়তে পারেন। এছাড়া সাম্প্রতিক ঘটনাবলী জানার জন্য পড়তে পারেন কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স। কম্পিউটার, ICT ও বিজ্ঞানের প্রস্তুতির জন্য পড়তে পারেন ওরাকল বিসিএস প্রিলিমিনারি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি।

এই ছিলো আজকের সংক্ষিপ্ত প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮ সাজেশন। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিস্তারিত সাজেশন পেতে আমাদের ওয়েবসাইট এ চোখ রাখুন