ভর্তি তথ্যসকল ভর্তি খবর

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পেছাতে পারে

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পেছাতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর ভর্তি পরীক্ষা কবে হবে তা আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ভার্চুয়াল মাধ্যমে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী এ কথা জানান।

আরো পড়ুন- সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস শুরু ২৪ মে

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হয়নি। যেহেতু এবার কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হবে, তাই বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর ভর্তি পরীক্ষার সময় নির্ধারণ করা হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কেউ যদি বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগে ভর্তি পরীক্ষা নেয় তবে তাতে কোনো সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবে এইচএসসি পাস করা শিক্ষার্থীরা, আর বিশ্ববিদ্যালয় খুললে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের সশরীরে শ্রেণি-পাঠ শুরু হবে। তাই উভয়ের মধ্যে অনেক পার্থক্য রয়েছে।

তবে যারা এখনও যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সময় ঘোষণা করেনি তারা যেন ক্লাস কার্যক্রম শুরুর পর সময় নির্ধারণ করেন, আমাদের পক্ষ থেকে এমনটাই আহ্বান জানানো হচ্ছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার সময় নির্ধারণ করতে আমরা ইউজিসির সঙ্গে আলোচনা করব। গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রস্তাবিত কোনো সময় নির্ধারণ করা হলেও তা পিছিয়ে দেয়া হতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে আলোচনা করে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

করোনার কারণে দীর্ঘ এক বছর ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে করোনার প্রাদুর্ভাব কিছুটা কমে যাওয়ায় সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। এরইমধ্যে বেশ কিছু কারণে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে দেশের কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়। যেখানে বারবার হল খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

এমন পরিস্থিতিতে সোমবার দুপুর দুইটায় অনলাইনে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে আসেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সেখানে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৪ মে থেকে পাঠদান শুরু হবে এবং ১৭ মে আবাসিক হল খুলবে বলে জানানো হয়। এর আগে সব ধরনের পাঠদান ও পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।

আরো পড়ুন- সকল বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকছে ঈদ পর্যন্ত!

সে হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম পুরোপুরি চালু হতে এখনও তিন মাস বাকি। মে মাসের ২৪ তারিখ বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর কবে ভর্তি পরীক্ষা হবে সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে আলোচনা হবে। তারপর সিদ্ধান্ত জানানো হবে। সবমিলে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় বসতে আরো প্রায় চার মাস অপেক্ষা করতে হবে।

এর আগে, শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল, করোনাকালে উচ্চশিক্ষার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সোমবার দুপুর ২টায় শিক্ষামন্ত্রী অনলাইন সংবাদ সম্মেলন করবেন।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে EducationsinBD.com এর ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন YouTube Channel জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল নোটিশ দেখুন এখানে একসাথে National University Notice Board অনার্স /মার্স্টাস/ ডিগ্রি পরীক্ষার প্রিমিয়াম সাজেশন পেতে ফেসবুক পেজে মেসেজ দিন। https://www.facebook.com/PremiumSuggestion আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন Facebook Group

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *